ইসরায়েলি এক রাজনীতিবিদকে ঘিরে দুই ধরনের আচরণ করছে সরকার

0
323
রোববার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, “সজীব ওয়াজেদ জয়ের সঙ্গে সাক্ষাতের কথা বলেছেন মেন্দি সাফাদি নিজেই। একজন ব্যক্তির সঙ্গে বিএনপির কোনো নেতা কথা বললে হয় রাষ্ট্রদ্রোহ, আর প্রধানমন্ত্রীর ছেলে কথা বললে হয় দেশপ্রেমিক। এই হচ্ছে দেশের বর্তমান পরিস্থিতি, এই হচ্ছে ভোটারবিহীন সরকারের বিচার।”

ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পার্টির সদস্য মেন্দি সাফাদির সঙ্গে বৈঠকের একাধিক ছবি গণমাধ্যমে আসার পর বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা করেছে পুলিশ।

এরইমধ্যে গত শুক্রবার সাফাদির একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশ করে বিবিসি বাংলা অনলাইন। সেখানে বলা হয়, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ছেলে জয়ের সঙ্গে ওয়াশিংটন ডিসিতে সাক্ষাৎ হয়েছে বলে সাফাদি দাবি করেছেন।

তার ওই দাবি নাকচ করে জয় রোববার সকালে ফেইসবুকে লিখেছেন, সাফাদির সঙ্গে কোথাও তার বৈঠক হয়নি।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, একজন নিরীহ মানুষকে ‘মিথ্যা তথ্য’ ও ‘ষড়যন্ত্র করে’ কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এখন যখন থলের বিড়াল বের হলো তখন নাটক, উদ্দেশ্য প্রণোদিত বলা হচ্ছে। জনগণ তা মেনে নেবে না।
তিনি বলেন, সরকার কত ধরণের ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তকারী হতে পারে, এর দৃষ্টান্ত হচ্ছে জয় ও মেন্দির বৈঠক। আজকে এই যে ঘটনা শুধু বিএনপি নয়, দেশের সমগ্র জনগোষ্ঠী জানতে চায় সরকার কি ব্যবস্থা নেয়।
এক প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, সরকার মিথ্যা তথ্যের ওপর ভর করে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিচ্ছে, যাতে করে একটি কার্যকর আন্দোলন গড়ে উঠতে না পারে।
সংবাদ সম্মেলন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব, অর্থবিষয়ক সম্পাদক, সহ-দফতর সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here