বুধবার, মে ২২, ২০২৪

২০২২ সালের ‘শ্রেষ্ঠ আর্থিক প্রতিষ্ঠান’-এর স্বীকৃতি পেল ব্র্যাক ব্যাংক

যা যা মিস করেছেন

মর্যাদাপূর্ণ ডিএইচএল-দ্য ডেইলি স্টার বাংলাদেশ বিজনেস অ্যাওয়ার্ড ২০২২ অর্জন

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর ২০২৩: ২০২২ সালের শ্রেষ্ঠ আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে ডিএইচএল-দ্য ডেইলি স্টার বাংলাদেশ বিজনেস অ্যাওয়ার্ড জিতেছে ব্র্যাক ব্যাংক।
এই পুরস্কার জয়ের মধ্য দিয়ে দেশের প্রথম কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে ব্র্যাক ব্যাংক দুইবার এই মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার জেতার গৌরব অর্জন করেছে। ২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো পুরস্কারটি অর্জন করে ব্র্যাক ব্যাংক।

এই পুরস্কারটি বাংলাদেশের সর্বাধিক পঠিত ইংরেজি পত্রিকা ‘দ্য ডেইলি স্টার’- এর সাথে বিশ্বব্যাপী লজিস্টিক সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ডিএইচএল- এর একটি যৌথ উদ্যোগে দেওয়া হয়। ২০০০ সালে চালু হওয়া এই পুরস্কারের লক্ষ্য হলো, দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী এবং প্রতিষ্ঠানসমূহের ব্যতিক্রমী ও উল্লেখযোগ্য অর্জন ও
অবদানসমূহকে সকলের সামনে তুলে ধরা।

১৭ অক্টোবর ২০২৩ ঢাকার একটি হোটেলে আয়োজিত এক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ব্র্যাক ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও সেলিম আর. এফ. হোসেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, এমপি- এর কাছ থেকে পুরস্কারটি গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্থিত ছিলেন দ্য ডেইলি স্টারের সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনাম, ডিএইচএল ওয়ার্ল্ডওয়াইড এক্সপ্রেস (বাংলাদেশ) প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিয়ারুল হক এবং ব্র্যাক
ব্যাংকের চেয়ারপারসন মেহেরিয়ার এম. হাসান। এই মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার সম্পর্কে বলতে গিয়ে সেলিম আর. এফ. হোসেন বলেন, “ব্র্যাক ব্যাংকের উচ্চতর
কার্যক্ষমতা ব্যাংকের সর্বোচ্চ বাজার মূলধন, আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীদের শেয়ারহোল্ডিং, আন্তর্জাতিক ক্রেডিট রেটিং এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংক ক্যামেলস রেটিংয়ের মধ্য দিয়ে প্রতিফলিত হয়েছে। স্থানীয় ব্যাংকগুলোর মধ্যে আমরা সকল আর্থিক সূচকে শীর্ষস্থান বজায় রেখেছি এবং টেকসই ও মূল্যবোধ-ভিত্তিক ব্যাংকিংয়ের মানদণ্ড
হিসেবে আবির্ভূত হয়েছি।”

তিনি আরও বলেন “ডিএইচএল এবং দ্য ডেইলি স্টার কর্তৃক প্রদানকৃত এই বাংলাদেশ বিজনেস অ্যাওয়ার্ডটি ব্যাংকিং খাতে ব্র্যাক ব্যাংককে সুউচ্চ স্তরে নিয়ে যাওয়ার প্রেরণা প্রদানের পাশাপাশি দেশে আর্থিক অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং সামাজিকভাবে দায়বদ্ধ ব্যাংকিং চালিয়ে যেতে আমাদের অনুপ্রাণিত করবে; ঠিক যেমনটি স্যার আবেদ স্বপ্ন দেখেছিলেন। ব্যাংকিং খাতে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের লক্ষ্যে আমাদের প্রচেষ্টা সবসময় অব্যাহত থাকবে। আমরা আমাদের এই অর্জন আমাদের গ্রাহকদের সাথে ভাগাভাগি করে নিতে চাই, যাদের আমাদের ব্যাংকের প্রতি অবিচল আস্থা এবং বিশ্বাসের কারণে আজ আমরা এই অবস্থানে আসতে পেরেছি।” ক্ষুদ্র ও মাঝারি আকারের শিল্প (এসএমই) থেকে শুরু করে কর্পোরেট এবং রিটেইল ব্যবসা পর্যন্ত সব ধরনের গ্রাহকদের আধুনিক ও সহজ ব্যাংকিং সেবা প্রদানের মাধ্যমে ব্র্যাক ব্যাংক ব্যাংকিং খাতে এক অনন্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে। গ্রাহকদের বহুমুখী ব্যাংকিং প্রয়োজন মেটানোর লক্ষ্যে ব্র্যাক ব্যাংক ট্রেজারি
রেমিট্যান্স এবং এজেন্ট ব্যাংকিংসহ বিভিন্ন সর্বোচ্চমানের সেবাসমূহ প্রদান করে যাচ্ছে।

একটি ঐতিহাসিক অর্জন হিসেবে এর আগে ব্র্যাক ব্যাংক বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র ব্যাংক হিসেবে মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশনে ১ বিলিয়ন ডলার সীমা ছোঁয়ার গৌরব অর্জন করে। আর্থিক দৃঢ়তা এবং সক্ষমতার প্রতি অটল প্রতিশ্রুতিপূর্বক ব্যাংকটি দীর্ঘদিন ধরে ব্যাংকিং খাতের বিদ্যমান গড়েরও নিচে ব্যাংকের নন-পারফর্মিং লোনের হার বজায় রেখেছে। ২০২২ সালে ব্যাংকটি জাতীয় কোষাগারে ১ হাজার ২৪ কোটি টাকা কর পরিশোধের মাধ্যমে দেশের জাতীয় আয়েও উল্লেখযোগ্যভাবে অবদান রেখেছে।

ভবিষ্যতের প্রতি লক্ষ রেখে ব্র্যাক ব্যাংক নিজেদের ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন এজেন্ডা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। এই এজেন্ডায় থাকা চারটি কৌশলগত উদ্দেশ্য হলো গ্রাহক সেবার মান উন্নত করা, রাজস্ব আয় বৃদ্ধির পাশাপাশি গ্রাহকসংখ্য বৃদ্ধি করা, ব্যয় প্রবাহে উৎকর্ষতা অর্জন করা এবং প্রতিষ্ঠানের কার্যপ্রণালীতে স্বচ্ছতা ও
নিরীক্ষণ-যোগ্যতা নিশ্চিত করা। আর্থিক খাতে নিজেদের অবস্থান আরও মজবুত করে সম্প্রতি ব্র্যাক ব্যাংক সর্বোচ্চ ক্রেডিট রেটিং অর্জন
করেছে। মুডিস (Moody’s) ইনভেস্টর সার্ভিসেস থেকে ‘বি১’ (B1) এবং এসঅ্যান্ডপি (S&P) গ্লোবাল রেটিং থেকে ‘বি প্লাস’ (B+) ক্রেডিট রেটিং অর্জন করেছে ব্র্যাক ব্যাংক, যার ফলে বাংলাদেশের সব ব্যাংকের মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করতে সমর্থ হয় ব্যাংকটি।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ