৫ অক্টোবর খুলছে ঢাবির হল, উঠতে লাগবে টিকার সনদ - দ্যা মেইল বিডি / খবর সবসময়
Lead Newsশিক্ষাশিক্ষা সংবাদ

৫ অক্টোবর খুলছে ঢাবির হল, উঠতে লাগবে টিকার সনদ

শতভাগ টিকার পর সশরীরে ক্লাস

আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে অনার্স শেষ বর্ষ ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগার এবং ৫ অক্টোবর থেকে খুলে যাচ্ছে আবাসিক হলগুলো। তবে অন্তত এক ডোজ টিকা নেওয়ার প্রমাণপত্র ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈধ পরিচয়পত্র থাকাসাপেক্ষে সেদিন সকাল ৮টা থেকে স্নাতক (সম্মান) চতুর্থ বর্ষ ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীদের হলে তোলা হবে।

আজ শনিবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নির্বাহী ফোরাম সিন্ডিকেটের এক জরুরি সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটি ও একাডেমিক কাউন্সিলের সুপারিশ অনুযায়ী এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো। তবে হল খুললেই এখনই চালু হচ্ছে না সশরীরে ক্লাস কার্যক্রম। সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বিশ্ববিদ্যালয়ের শতভাগ শিক্ষার্থী টিকা কার্যক্রমের আওতায় আসার পর সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রমের তারিখ নির্ধারণ করা হবে। শিক্ষার্থীদের টিকা নিশ্চিত করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ বুদ্ধিজীবী ডা. মোহাম্মদ মোর্তজা মেডিকেল সেন্টারে টিকা প্রদান কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অনার্স ৪র্থ বর্ষ এবং মাস্টার্স-এর যেসব শিক্ষার্থী অন্তত ‘কোভিড-১৯’-এর প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন, তারা স্বাস্থ্যবিধি এবং এসওপি( স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর) অনুসরণ করে টিকা গ্রহণের কার্ড/ সনদ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈধ পরিচয়পত্র সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে দেখিয়ে গ্রন্থাগার ব্যবহার ও নিজ নিজ হলে উঠতে পারবেন।

এতে আরও বলা হয়, সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীরা ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে সকাল ১০টা হতে বিকাল ৫টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার, বিজ্ঞান গ্রন্থাগার ও বিভাগীয়/ইনস্টিটিউটের সেমিনার লাইব্রেরিগুলো ব্যবহার করতে পারবেন। সংশ্লিষ্ট আবাসিক শিক্ষার্থীরা ৫ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে নিজ নিজ হলে উঠতে পারবেন। তবে শিক্ষার্থীদের ও বিভিন্ন সেবা প্রদানকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকা গ্রহণের সনদ বা প্রমাণপত্র সাথে রাখতে হবে।

সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি আবাসিক হল ও একাডেমিক ভবনের দৃশ্যমান জায়গায় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের নির্দেশিকা সংবলিত ব্যানার ও ফেস্টুন থাকবে। টিকা গ্রহণ সাপেক্ষে পর্যায়ক্রমে অনার্স ১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য নিজ নিজ আবাসিক হল খুলে দেওয়া হবে। আবাসিক হলগুলোতে আগের মতো ঠাসাঠাসি করে বসবাস করা এবং কথিত কোনো ‘গণরুম’ রাখা যাবে না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুধু নিয়মিত আবাসিক শিক্ষার্থীরা হলে অবস্থান করবেন। সভায় হল ও ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে ক্রিয়াশীল ছাত্র সংগঠনসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করা হয়। যেসকল শিক্ষার্থী এখনো টিকা রেজিস্ট্রেশন করেননি, তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন সনদ দিয়ে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে রেজিস্ট্রেশনের আওতায় এসে টিকা গ্রহণের জন্য বলেছে সিন্ডিকেট।

Show More

এই বিভাগের আর খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close