রবিবার, মে ২৬, ২০২৪

দুর্গাপুরে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর দুই সমর্থককে কুপিয়ে আহত

যা যা মিস করেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: নেত্রকোনার দুর্গাপুরে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী নাজমুল হাসান নীরা ওরফে সাদ্দাম আকঞ্জির দুই সমর্থককে কুপিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। গত বুধবার বিকেলে উপজেলা সদরে আদালত চত্বরে ও উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হচ্ছেন, দুর্গাপুর সদর ইউনিয়নের ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি নুরুন্নবী ও উপজেলার চন্ডিগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা মাহাবুব। তারা উভয়েই সাদ্দাম আকঞ্জির সমর্থক। আহত দুইজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আগামী উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নাজমুল হাসান নীরা ওরফে সাদ্দাম আকঞ্জির সাথে বেশ কিছুদিন ধরে উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান ও তার লোকজনের মধ্যে এলাকায় নানা বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে বুধবার (১৭ এপ্রিল) বিকেলে সাদ্দাম আকঞ্জির সমর্থক নূরুন্নবী এক মামলায় আদালতে হাজিরা দিয়ে বের হলে হাবিবুর রহমানের লোকজন তার ওপর হামলা চালায়। হামলাকারীরা তাকে রামদা দিয়ে এলোপাথারী কুপিয়ে আহত করে।

এর কিছুক্ষন পর উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে সাদ্দাম আকঞ্জির অপর সমর্থক ছাত্রলীগ নেতা মাহাবুবের ওপর হামলা চালানো হয়। তাকেও কুপিয়ে আহত ও তার মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে হামলাকারীরা। এ সময় হাবিবুর রহমানও আহত হন। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে নুরুন্নবী ও মাহাবুবকে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ নিয়ে সাদ্দাম আকঞ্জি বলেন, আমি উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই কিছু স্বার্থান্বেষী মহল আমার কর্মীদের ওপর হামলা করে যাচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আসন্ন উপজেলা নির্বাচনকে অবাধ এবং নিরপেক্ষ করার লক্ষে প্রার্থীতা উন্মুক্ত করে দিয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় আমি তৃণমুল নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছি। আমার জনপ্রিয়তা নস্ট করার জন্য একটি মহল আমার বিরুদ্ধে নানা ধরনের অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। আজকে আমার দু’জন সমর্থককে কুপিয়েছে। আমি এর তীব্র নিন্দা জ্ঞাপনসহ দুর্গাপুর উপজেলাবাসী ও দলীয় নেতাদের কাছেই এর বিচারের ভার ছেড়ে দিলাম।

দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম সফিক বলেন, আগামী শুক্রবার দুর্গাপুরে দলীয় কর্মসুচী রয়েছে। এ কর্মসূচি নিয়ে সারাদিন ব্যাস্ত ছিলাম। তবে দুই পক্ষের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে শুনেছি। এটা দলীয় কোন বিষয় নয়, এটা তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার।

দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উত্তম কুমার দেব বলেন, শুনেছি দুই পক্ষের মধ্যে গন্ডগোল হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ