রবিবার, জুন ৯, ২০২৪

নোয়াখালীতে মুক্তিযোদ্ধাদের সরণে গেট নির্মাণ করতে গিয়ে হয়রানির স্বীকার

যা যা মিস করেছেন

(নোয়াখালী প্রতিনিধি)

নোয়াখালী কবির হাট উপজেলা ৫নং চাপরাশির হাট ইউনিয়ন রামেশ্বর পুর গ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আব্দুল হাই মাষ্টার মুক্তিযোদ্ধাদের সরণে তার নিজের বাড়ির গেট নির্মাণ করতে গিয়ে নানা ভাবে হয়রানির স্বীকার এমন এক অভিযোগ উঠেছে।

১৯৭১সালে মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগ ও বীরত্বপূর্ণ লড়াইয়ের মধ্যে দিয়ে জন্ম নিয়েছিল একটি স্বাধীন বাংলাদেশ,মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগ ছাড়া কখনো এই দেশ স্বাধীন হতো না।
এই দেশের সৃর্য সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে তাদেরই একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আব্দুল হাই মাষ্টার মুক্তিযোদ্ধাদের সরণে নিজ বাড়ির গেট নির্মাণ করতে গিয়ে নানা ভাবে হয়রানির স্বীকার হয় তিনি।

বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আব্দুল হাই মাষ্টার বলেন এই বাড়ি আমার পৈতৃক সম্পত্তি ও ক্রয় কৃত সম্পত্তি আমি আমার বাড়ির গেট নির্মাণ করতেছি মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে যেন ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এই স্মৃতি বহন করে। কিন্তু আমার প্রতিপক্ষ সৈয়দ মোস্তাফা কামাল আমরা মামাতো ফুফাতো ভাই তিনি এই বাড়িতে বসবাস করেন না তিনি বর্তমানে ঢাকার কেরানীগঞ্জের স্থায়ী বাসিন্দা

পরিবার পরিজন নিয়ে তিনি ঢাকায় বসবাস করেন গত ১ই সেপ্টেম্বর সৈয়দ মোস্তাফা কামাল ঢাকা থেকে দল বল নিয়ে আমার গেট নির্মাণ কাজে বাধা দেয় এবং ভাঙচুর করে
আমার বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে বিভিন্ন ভাবে আমাকে হয়রানি করেন,

এবং আমার বিরুদ্ধে সংবাদ মাধ্যমে বিভিন্ন অপপ্রচার চালান তিনি। যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এই গেট দিয়ে সবাই চলাচল করবে আমি কারো চলাচলের রাস্তা বন্ধ করিনি আমাকে নিয়ে যে অপপ্রচার হচ্ছে সম্পৃর্ণ ভিত্তিহীন।আব্দুল হাই মাষ্টার আরো বলেন আমি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।

কিন্তু আমার প্রতিপক্ষ সৈয়দ মোস্তাফা কামাল আমাকে বুয়া মুক্তিযোদ্ধা বলে কুরুচিপূর্ণ ভাবে কথা বলে যা আমি মেনে নিতে পারি নি। আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি পরবর্তীতে আমাকে নোয়াখালীতে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তসম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ভাবে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে সৈয়দ মোস্তাফা কামাল আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তার বিচার চাই ।

এই বিষয়ে সৈয়দ মোস্তাফা কামাল এর সাথে যোগাযোগের সন্ধান মিলে নেই

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ