মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২৪

যশোরে বিএনপির কালো পতাকা মিছিল

যা যা মিস করেছেন

স্বীকৃতি বিশ্বাস, যশোরঃ

দ্রব্য মূল্যের সীমাহীন উর্দ্ধগতির প্রতিবাদে ও বিএনপি চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দীদের মুক্তি ও তাদের নামে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে জেলা বিএনপি আয়োজিত কলো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।


আজ শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) কালো পতাকা মিছিল পূর্বে যশোর জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
যশোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্যের শুরুতে তিনি বেনাপোল সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বিজিবি সদস্য নিহতের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সরকার ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর দেশের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করে। সীমান্তের অতন্ত্র প্রহরী বিডিআর বাহিনীকে ধ্বংস করেছে। আজ দেশের সীমন্ত অরক্ষিত রেখে পাশ্ববর্তী একটি দেশকে অবাধে বিচারনের লাইসেন্স দিয়েছে। যে কারণে নিজ দেশের সীমানের মধ্য এসে অহরহ সীমন্তরক্ষী বাহিনী সদস্যদের পার্শ্ববতী সেই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী গুলি করে হত্যা করছে। ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব আজ হুমকির মধ্যে।

যশোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম বলেন, সাজানো পাতানো ডামি নির্বাচনের মাধ্যমে একটি অবৈধ সংসদ গঠন করা হয়েছে। এই অবৈধ সরকারের হাতে যেমন দেশের গণতন্ত্র জনগণের জানমাল নিরাপদ নয়,তেমনি স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব মোটেও নিরাপদ নয়। এই নতজানু সরকার স্বাধীন ভূখন্ডে পার্শ্ববতী দেশকে অবাধে বিচারণের সুযোগ করে দিয়েছে।
অধ্যাপক নার্গিস দলের চেয়ারপার্সন বেগম দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন। এছাড়া দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ সকল রাজবন্দীদের নিঃশর্ত মুক্তি ও তাদের নামে দায়ের কৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

সমাবেশে শেষে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক (খুলনা বিভাগ) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত ও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগমের নেতৃত্বে দলীয় নেতা-কর্মীরা পুলিশি বাঁধা উপেক্ষার করে কালো পতাকা মিছিল করেন।
মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য প্রকৌশলী টি এস আইয়ূব, জেলা বিএনপির সদস্য মো.মুছা, সিরাজুল ইসলাম, নগর বিএনপির সভাপতি রফিকুল ইসলাম চৌধুরী মুল্লুক চাঁদ, সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হক সেতু, মনিরামপুর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক সাবেক পৌর মেয়র অ্যাড. শহীদ ইকবাল হোসেন, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পদাক আঞ্জুরুল হক খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ