বুধবার, জুন ১২, ২০২৪

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত

যা যা মিস করেছেন

শাকিল বাবু
নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

শিক্ষা, গবেষণা ও উন্নয়নের নবযাত্রায় স্বাগত জানিয়ে আড়ম্বরপূর্ণ ওরিয়েন্টেশন-২০২৩ এর মধ্যদিয়ে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) ভর্তিকৃত নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিয়েছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়।

মঙ্গলবার (০৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নবীনদের উচ্চশিক্ষা ও জীবনগঠন নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন দেশের বুদ্ধিজীবী, বিজ্ঞানী ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। এছাড়াও ওরিয়েন্টেশন বক্তৃতা দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু। সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, “নতুন প্রজন্মকে এখনই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তাদেরকে মানবিক গুণাবলি সম্পন্ন মানুষ হতে হবে যেটা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা কখনো পারে না। তোমাদের নিজেদের তাগিদেই মানুষের গুণাবলিগুলো অর্জন করে নিতে হবে। তা না হলে তুমি কিন্তু টিকবে না। সামনের জীবনে চলতে হলে সতর্ক হয়ে থাকতে হবে।
তিনি বলেন, মানুষ মানুষ হয়েছে তার কল্পনা শক্তির দ্বারা। একমাত্র মানুষই পারে কোনো কিছুকে কল্পনা করতে। যা অন্যকোন জীবই পারে না। পৃথিবীতে আইনস্টাইনের চেয়ে বেশি জ্ঞান কেউ দেয় নি। সেই তিনি বলেছেন জ্ঞানের চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো কল্পনা। কাজেই সেই কল্পনা করার ক্ষমতাকে তরুণ প্রজন্মকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। আর সেটা করার অনেক রাস্তা আছে তবে সবচেয়ে সহজ রাস্তাটা হলো বই পড়া। শিক্ষার্থীদের কাছে আমার একটাই অনুরোধ তোমরা বেশি বেশি বই পড়ো।”

ওরিয়েন্টেশন বক্তৃতায় দেশের মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপট, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানসহ নানা বিষয় তুলে ধরেন বীর মুক্তিযোদ্ধা নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু। তিনি বলেন, “মুক্তিযুদ্ধের লড়াইটা অনেক দীর্ঘ। সেই লড়াইয়ের নতুন যোদ্ধা হচ্ছেন আপনারা। আমাদের কাজটা আমরা কোনোভাবে শেষ করেছি হয়তো কিছুটা সফল। একটি ভূমি আছে, স্বাধীন সার্বভৌম আছে-এ জায়গায় হয়তো আমরা সফল কিন্তু দেশটা আপনারা গড়বেন।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর বলেন, “শিক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন এই তিনটি মোটো নিয়ে বর্তমান প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয়কে পরিচালনা করছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি নন্দনকানন হিসেবে গড়ে তোলা হবে। যেখানে লেখাপড়ার মানকে সুনিশ্চিত করা হবে, গবেষণার উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করা হবে। বিজ্ঞানমনস্ক প্রজন্ম তৈরি করে দক্ষতা বৃদ্ধিতে সকল ধরনের উৎসাহ দেওয়া হবে।”

ওরিয়েন্টেশনে আগত নবীন শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানিয়ে তিনি আরও বলেন, “শিক্ষা জীবনে সর্বোচ্চ জ্ঞান অর্জনের অন্যতম বিদ্যাপীঠ হলো বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে পড়াশোনার পাশাপাশি একজন শিক্ষার্থী সত্যিকারের ও সার্বিক মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠার পথের দিশা পায়। তাই জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীন শিক্ষার্থী হিসেবে সপ্তদশ আবর্তনে যুক্ত হয়ে এ প্রাঙ্গণে যারা আসছে তাদের সকলকে আমরা স্বাগত জানাই।”

ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. আতাউর রহমান, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. নজরুল ইসলাম, কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মুশাররাত শবনম, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. উজ্জ্বল কুমার প্রধান, ব্যাবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন ও ওরিয়েন্টেশন আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. মো. রিয়াদ হাসান, চারুকলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তপন কুমার সরকার। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন প্রক্টর সঞ্জয় কুমার মুখার্জী। সঞ্চালনা করেন রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীর।

ওরিয়েন্টশন অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদেরকে জীবন ও চরিত্র গঠনের পরামর্শের পাশাপাশি হাতে তুলে দেওয়া হয় এক বছরের একাডেমিক ক্যালেন্ডার। এই ক্যালেন্ডার অনুসারে ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যতে লেখাপড়া, পরীক্ষা এবং অন্যান্য একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ