বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০২৪

আনোয়ারায় পাহাড়ের পাদদেশে দেড়শতাধিক পরিবারের ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস, ধসের শঙ্কা

যা যা মিস করেছেন

মোঃ ফখর উদ্দিন আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতাঃ

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় বিভিন্ন শিল্পকারখানার কারণে উচ্ছেদ হয়ে বৈরাগ ইউনিয়নের বদুলপুড়া গ্রামে এসে আশ্রয় নেয় প্রায় দেড়শতাধিক পরিবার। দীর্ঘ দেড় যুগেরও বেশি সময় ধরে ঝুঁকিপূর্ণভাবে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস করে আসছে এসব পরিবারগুলো। ভারী বর্ষণের ফলে যেকোনো মুহূর্তে পাহাড় ধসের শঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। ফলে বহু হতাহতসহ ঘটতে পারে প্রাণহানির ঘটনা এই কারণেই ঝুঁকিপূর্ণ পরিবারগুলোকে শীঘ্রই অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার দাবি জানান আশেপাশের বাসিন্দারা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বদুলপুড়া গ্রামে পাহাড়ে বসবাসকারীদের যাতায়াতের রাস্তায় একপাশে পাহাড় ধসে পড়ে আছে। ওই পাহাড়িয়া এলাকায় প্রায় দেড় শতাধিক পরিবারের বসবাস রয়েছে। তারমধ্যে অনেকগুলো পরিবার খুবই ঝুঁকিপূর্ণ।

সেলিনা বেগম নামের পাহাড়ে বসবাসকারী এক বাসিন্দা জানান, আমরা ঝুকিপূর্ণভাবে অনেকগুলো পরিবার এখানে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছি। গতকাল স্থানীয় মেম্বার এসে মার্কিং করে সতর্ক করে গেছে। এখন বিকল্প বাসস্থান না ফেলে কোথায় যাবো আমরা।

হাসান নামের আরেক বাসিন্দা বলেন, বৃষ্টি পড়লে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এসে পরিদর্শন করে যায় তবে এছাড়া তো আমাদের আর থাকার জায়গা নাই।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মুহাম্মদ মোরশেদ জানান, বদুলপুড়া গ্রামে পাহাড়ের বসবাসকারীরা দীর্ঘ একযুগের বেশি সময় ধরে বসবাস করে যাচ্ছে। বৃষ্টির মধ্যে প্রতিদিন আমি একবার গিয়ে তাদের খোঁজখবর নিচ্ছি, তাদের মাইকিং করে সতর্ক করা হচ্ছে।

স্থানীয় ১নং বৈরাগ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নোয়াব আলী বলেন, এমনিতে কোনো সমস্যা না হলেও বৃষ্টির দিনে একটু ঝুঁকি থেকেই যায়। যার কারণে ওখানে বসবাসকারীদের মাইকিং করে সতর্ক করা হয়েছে এবং আমি নিজেও গিয়ে পরিদর্শন করি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ ইশতিয়াক ইমন বলেন, বিষয়টি আমি অবগত হয়েছি। এই নিয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে কথা হয়েছে এবং ওনাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিষয়টি দেখবাল করার। এবং তাদের সতর্ক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ