শুক্রবার, জুন ১৪, ২০২৪

জবিতে ইতিহাসবিদ ‘মুনতাসীর মামুন’ স্বর্ণপদক চালু

যা যা মিস করেছেন

সোয়াইব আলী, জবি প্রতনিধি:

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ইতিহাস বিভাগে ‘অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন স্বর্ণপদক’ প্রবর্তন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে ইতিহাস বিভাগে স্নাতকের ফলাফলের ভিত্তিতে সর্বোচ্চ সিজিপিএধারী শিক্ষার্থীদের এ স্বর্ণপদক প্রদান করা হবে।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুর ৩টায় উপাচার্যের সভাকক্ষে (জবি) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগে ইতিহাসবিদ ‘মুনতাসীর মামুন’ স্বর্ণপদক চালু শীর্ষক অনুষ্ঠান ও চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তিটি স্বাক্ষর করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. হুমায়ুন কবির চৌধরী ও রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মোঃ আইনুল ইসলাম।

উপাচার্য বলেন, শিক্ষক বেঁচে থাকে তার ছাত্রদের মাঝে। ছাত্রদের কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে শিক্ষকের সার্থকতা। এই ধরণের একটি উদ্যোগ নিয়ে ইতিহাস বিভাগের পাশে এসে দাঁড়ানোর জন্য দাতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন বলেন, তার শিক্ষার্থীদের কাছে থেকে এরকম সম্মান পেয়ে তিনি গর্বিত। শিক্ষকের সার্থকতা তার শিক্ষার্থীদের কর্মে। তিনি ইতিহাস বিভাগে কর্মরত তার প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানান এই ট্রাস্ট ফান্ড চালু করতে সহায়তা করার জন্য।

অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন প্রায় পাঁচ দশক ধরে শিক্ষকতা, ইতিহাস চর্চা ও রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত। তিনি উপমহাদেশের বরেণ্য ইতিহাসবিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের প্রাক্তন ও বর্তমানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যায়ের বঙ্গবন্ধু অধ্যাপক। খুলনার গণহত্যা জাদুঘর ও বাংলাদেশ ইতিহাস সম্মিলনীর প্রতিষ্ঠাতা।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের প্রায় সকলের শিক্ষক তিনি। আগামীকাল ২৪ মে ২০২৪ অধ্যাপক মামুনের ৭৩তম জন্মদিন। বরেণ্য এই শিক্ষকের কমর্ময় জীবনের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ আজ আয়োজন করেছিল চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এই সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক সাদেকা হালিম এবং সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন।

এছাড়া ইতিহাস বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মুর্শিদা বিনতে রহমান, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সেলিম, অধ্যাপক খোদেজা খাতুন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক হুমায়ন কবির চৌধুরী, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আইনুল ইসলাম ও দাতাদের পক্ষে ফাতেমা মামুন ও অধ্যাপক ড. চৌধুরী শহীদ কাদেরসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এই ট্রাস্ট ফান্ডের উদ্যোক্তা অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনের প্রাক্তন ছাত্র ও বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. চৌধুরী শহীদ কাদের। পরে তার এই উদ্যেগের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনের পরিবারের সদস্যরা। প্রাথমিকভাবে দাতারা দশ (১০) লক্ষ টাকা প্রদান করে ট্রাস্ট ফান্ড গঠন করেন।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ