মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২৪

পিতাকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে মেয়ে

যা যা মিস করেছেন

কে. এম. সাখাওয়াত হোসেন : নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে বৃদ্ধ জাহের উদ্দিন (৭৫) হত্যা মামলা মূল আসামিকে ছয় ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত মোছা. সাহেরা খাতুন (৩৮) নিহত বৃদ্ধের মেয়ে। এ হত্যাকান্ড প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে প্রচার করেছিল নিহতের স্ত্রী ও ছেলে-মেয়েরা।

শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে এ তথ্য জানান, নেত্রকোণার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি ও মিডিয়া মুখমাত্র) মো. লুৎফর রহমান।

তিনি জানান, গত ২৯ ডিসেম্বর ভোর সাড়ে ৪টার দিকে মোছা. সাহেরা খাতুন নিজ ঘরে তার পিতাকে হত্যা করে থানা পুলিশকে খবর দেন। কে বা কাহারা তার পিতাকে হত্যা করে রেখে গেছে। এ তথ্য পেয়ে মোহনগঞ্জ থানার ওসিসহ পুলিশ ঘটনা স্থলে উপস্থিত হন। হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে সাহেরা খাতুন, মামলার বাদী হাজেরা আক্তার ওরফে আনেছাসহ পাঁচজনকে জিজ্ঞাসাবাদে জন্য থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে সাহেরা খাতুন তার পিতাকে খুনের কথা স্বীকার করেন। তার বাবা তাকে জমি লিখে না দেওয়ার কারণে ক্ষোভে বশবর্তী হয়ে তরকারি কাটার দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন। মেয়ের পরামর্শে মামলা বাদী নিহতের স্ত্রী হাজেরা আক্তার পুলিশ ও অন্যান্য উপস্থিত লোকজনের কাছে প্রতিপক্ষ শান্ত মিয়া ওরফে আ. রহমান গংরা তার স্বামীকে হত্যা করেছে বলে প্রচার করতে থাকেন।

প্রতিপক্ষের লোকজনদেরকে হত্যা মামলায় ফাঁসানোর জন্য মিথ্যা সাজানো ঘটনার আশ্রয় নেওয়ার কথা জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন হত্যাকারী সাহেরা খাতুন। তার বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন বলে জনান তিনি।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ