বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪

গাইবান্ধায় মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকার,লম্পট শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ “

যা যা মিস করেছেন

গাইবান্ধা প্রতিনিধি :

১১ বছর বয়সী এক মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাহাবুবুর রহমান (২৩) নামের এক শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ করছে মাদ্রাসা কমিটি।

ঘটনাটি ঘটেছে,গাইবান্ধা সদর উপজেলার রামচন্দ্র পুর ইউনিয়নের পোল্লাখাদা রইচ উদ্দিন মণ্ডল জোবেদা বেগম হাফেজিয়া কওমী এন্ড নূরানী একাডেমিক মডেল মাদ্রাসায়।

অভিযুক্ত মাহাবুবুর রহমান পোল্লাখাদা রইচ উদ্দিন মণ্ডল জোবেদা বেগম হাফেজিয়া কওমী এন্ড নূরানী একাডেমিক মডেল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক।

অভিযুক্ত লম্পট শিক্ষক তিনি গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরপুর তালুককানুপুর গ্রামের মজিবুর রহমানের পুত্র।

মাদ্রাসা সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, শিক্ষক মাহাবুবুর রহমান প্রায় দুই/আড়াই মাস ধরে পোল্লাখাদা রইচ উদ্দিন মণ্ডল জোবেদা বেগম হাফেজিয়া কওমী এন্ড নূরানী একাডেমিক মডেল মাদ্রাসায় সহকারী শিক্ষক পদে চাকুরী করে আসছেন।

বাড়ি দূরে হওয়ায় এ মাদ্রাসায় থাকেন। অন্যান্য দিনের ন্যায় গত শুক্রবার দিবাগত রাতে ওই ছাত্র খাওয়া দাওয়া শেষে মাদ্রাসা কক্ষে ঘুমিয়ে পড়লে শিক্ষক মাহাবুবুর রহমানও ওই ছাত্রের পাশে ঘুমিয়ে পড়েন। এ সুযোগে রাত ভোরের দিকে ওই ছাত্রকে বলাৎকার করেন।

ওই ছাত্র সকাল হলে বিষয়টি সহপাঠীদেক না জানিয়ে সরাসরি তার মাকে অবগত করলে মা এসে বিচারের দাবীতে মাদ্রাসা কমিটির নিকট মৌখিক অভিযোগ করেন।

এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে মাদ্রাসা কমিটির লোকজন জরুরী বৈঠকে উভয় পক্ষের জবানবন্ধি শেষে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক রাখেন। এরপর খবর পেয়ে গাইবান্ধা সদর থানার এসআই মমিনুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে মাদ্রাসা কমিটির লোকজন শিক্ষক মাহাবুবুর রহমানকে সোপর্দ করেন।

এ সময় রামচন্দ্র পুর ইউপি চেয়ারম্যান মোছাব্বির হোসেনসহ স্থানীয় ইউপি সদস্য ও এলাকার গন্যমান্য লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ