মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শব্দচয়নে সতর্ক হতে হবে: জবি উপাচার্য

যা যা মিস করেছেন

সোয়াইব আলী, জবি প্রতিনিধি:

বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শব্দচয়নে আমাদের সতর্ক হতে হবে। তপন বিহারী নাগের মতো আমাদের সর্বক্ষেত্রে সততা ও ন্যায়নিষ্ঠতা দেখাতে হবে, তাহলেই আমরা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে পারবো বলে মন্তব্য করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম।

বুধবার (২৯ মে ) বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের আয়োজনে শিক্ষার্থীদের মাঝে তপন বিহারী নাগ ট্রাস্ট বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম।

উপাচার্য বলেন, “আমাদের সবার জীবনে নৈতিকতা ও সততা থাকতে হবে। বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শব্দচয়নে আমাদের সতর্ক হতে হবে। তপন বিহারী নাগের মতো আমাদের সর্বক্ষেত্রে সততা ও ন্যায়নিষ্ঠতা দেখাতে হবে। তাহলেই আমরা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে পারবো।”

তিনি আরও বলেন, মিস-ইনফরমেশন আর ডিস-ইনফরমেশন এর মধ্যে শিক্ষার্থীরা মিশে যাচ্ছে। এর থেকে তাদের বেরিয়ে আসতে হবে। মেয়েদের বৈষম্য দূর করতে মেয়েদেরকেই পদক্ষেপ নিতে হবে এজন্য মেয়েদেরকে বেশি বেশি আইনজীবী হতে হবে।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞ-এটর্নি জেনারেল এ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন।

তিনি বলেন,“বর্তমানে নারীরা বিভিন্ন পেশার পাশাপাশি আইন পেশায়ও ভালো করছেন। নারীরা নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব নিজেরাই তৈরি করছেন।” উপাচার্য অধ্যাপক সাদেকা হালিমের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অনেক দূর এগিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি আরো বলেন, একজন ভালো আইনজীবী হতে গেলে, ভালো মানুষ হতে হবে যাতে মানুষকে সেবা করতে পারেন। সেই ভালো বিচারক হতে পারবে যে মানুষকে এবং মানুষের কষ্টগুলো বুঝতে পারবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এস এম মাসুম বিল্লাহ এবং সমাপনী বক্তব্য দেন ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শারমীন আখতার।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য এ্যাডভোকেট তপন বিহারী নাগ মফস্বলের একজন সাধারণ আইনজীবি। তিনি তার জীবনের সকল সঞ্চয় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানে ব্যয় করেছেন। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ এবং ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগের মোট ১০ জন শিক্ষার্থীকে উক্ত বৃত্তি প্রদান করা হয়। এই বৃত্তির আওতায় প্রতি শিক্ষার্থী ১২ হাজার টাকা করে শিক্ষা সহায়তা পাবেন।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ