মঙ্গলবার, মে ২৮, ২০২৪

শ্রীমঙ্গলে রেলসেতুতে নাট-বল্টুর বদলে বাঁশের কঞ্চি

যা যা মিস করেছেন

তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি

রডের পরিবর্তে বিভিন্ন স্থাপনায় বাঁশের ব্যবহারের কথা প্রায় শোনা গেলেও এবার রেলসেতুর স্লিপার ক্লিপে নাট-বল্টুর বদলে বাঁশের কঞ্চি ব্যবহার হয়েছে।

ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভাড়াউড়া বাগানের জানকি ছড়া এলাকায় ১৫৩নং রেলসেতু কাঠের অর্ধেক স্লিপার নষ্ট হয়ে গেছে। আর নষ্ট হওয়া স্লিপারের লোহার ক্লিপে নাট-বল্টুর বদলে দেওয়া হয়েছে বাঁশের কঞ্চি। বিষয়টি নিয়ে অনুসন্ধানে বেড়িয়ে আসে এমন চিত্র।

আজ বুধবার সরেজমিনে দেখা গেছে, কোথাও কোথাও ক্লিপগুলো উঠে যাচ্ছে। এছাড়া অনেক স্লিপারে নাট-বল্টু নেই। আবার কোথাও কোথাও দেখা গেছে বাঁশের কঞ্চি। সেতুর আশপাশের লাইনেও অনেকগুলো ক্লিপ নেই। এতে ঝুঁকি নিয়ে চলছে রেল।

শ্রীমঙ্গল রেলস্টেশন থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার উত্তরে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের সন্নিকটে খালের উপর নির্মিত ঢাকা-সিলেট- চট্টগ্রাম রেলপথে ১৫৩ নং রেলসেতু। ব্রিটিশ সরকারের করা ব্রিজটির পাশাপাশি বর্তমান সরকার শেষবার মেরামত করে ২০১৯ সালে।

১৫৩ নং রেলসেতুর মধ্যে কাঠের ওপর স্লিপার রয়েছে। সেই স্লিপার আটকানো লোহার ক্লিপ থাকলেও পাশাপাশি পুরাতন ব্রিজের অনেকাংশেই লোহার ক্লিপের পরিবর্তে লাগানো হয়েছে বাঁশের কঞ্চি।

এ সেতুর উপর দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রী নিয়ে সিলেট -চট্টগ্রাম-ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ট্রেন যাতায়াত করে। পাশাপাশি মেঘনা, পদ্মা,যমুনা তেলের ডিপোর জন্য ভারী মালবাহী ট্রেন এই সেতুর ওপর দিয়ে যাওয়া-আসা করে থাকে।

ব্রিজ সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা চা শ্রমিক সন্তান বুধুম সরকার ও নাট্য কর্মী জহিরুল ইসলাম বলেন, আমি এই রাস্তা দিয়ে আমি প্রতিদিন হাঁটতে আসা যাওয়া করি বেশ কিছুদিন ধরে এই সেতুতে বাঁশের কঞ্চি ব্যবহার করে আসছে এবং ছোট্ট একটি সেতুতে ২৭ টি নাট বল্টু নেই, বাঁশের ব্যবহারে চালিয়ে নিচ্ছে এমন ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল।

এবিষয়ে শ্রীমঙ্গল পার্মানেন্ট ওয়ে ইন্সপেক্টরের (পিডব্লিউআই) গুলজার বলেন, আমার জানা মত রেল লাইনে বাঁশের ব্যবহার কখনো হবার কথা না। আর বাঁশ দিয়ে তো কখনো সম্ভব ও নয়। তার পর ও দেখছি অবহিত করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ বলে তিনি রেখে দেয়।
এবিষয়ে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আবু তালেব এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমি এবিষয়ে স্টেশন মাস্টারকে অবহিত করেছি ও আগামীকাল আইনশৃঙ্খলা মিটিং তখন এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার করা বলবো।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ