মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬, ২০২৪

মদনে সফল ইউএনও মো: শাহ আলম মিয়া

যা যা মিস করেছেন

দেওয়ান রানা (মদন) নেত্রকোণা প্রতিনিধি: সরকারি অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে জনগণের রয়েছে অনেক অভিযোগ এর মধ্যে ব্যতিক্রম জনবান্ধব পরিশ্রমী কর্মকর্তা মদন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শাহ আলম মিয়া। নিজের সততা ও কর্মদক্ষতায় পাল্টে দিয়েছে মদন উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক কার্যক্রম ও সার্বিক চিত্র।

সরকারি-বেসরকারি প্রতিটি দপ্তরের কর্মকাণ্ডে ফিরে এসেছে গতিশীলতা ও স্বচ্ছতা কমেছে জন ভোগান্তি আর বৃদ্ধি পেয়েছে জনসেভার মান। মদন উপজেলা যোগদান করে প্রায় এক বছরেই তার সততা ও কর্মদক্ষতা পাল্টে গেছে উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক কার্যক্রম ও সার্বিক চিত্র। সরকারি বেসরকারি প্রতিটি দপ্তরের কর্মকাণ্ডে ফিরে এসেছে গতিশীলতা।

হাওর অধ্যুষিত মদন উপজেলাকে একটি উন্নত আধুনিক জনপদ হিসেবে গড়ে তুলতে নিরলসভাবে কাজ করছেন তিনি। জনবান্ধব এই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কর্মকাণ্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন উপজেলার জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গসহ-সাধারণ মানুষ।

তিনি ২০২৩ সালে ১৫ মে মদন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বভার নেন। দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে তিনি উপজেলা প্রশাসনকে নিজের মতো করে ঢেলে সাজান। তার সততা ও কর্মদক্ষতায় উপজেলা পরিষদের নিয়ন্ত্রণাধীন প্রতিটি সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকাণ্ডে স্বচ্ছতা ও গতিশীলতা ফিরে আনতে কাজ শুরু করেন। কমে যায় জনভোগান্তি আর বৃদ্ধি পায় জনসেভার মান।

যোগদানের পর থেকে উপজেলার যেকোন অবৈধ ও অন্যায় কাজের বিরুদ্ধে তিনি সবসময় সোচ্চার। তিনি কোন অভিযোগ পেলে তার সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নেন। তাছাড়া গণমাধ্যম ফেসবুক মুঠোফোনের মাধ্যমে পাওয়া বিভিন্ন অভিযোগ দ্রুত সমাধান ও তাৎক্ষণিক ব্যবস্থানিয়ে সব শ্রেণি পেশা মানুষের প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি। তাছাড়া এই উপজেলা সুবিধা বঞ্চিত মানুষের সেবায় জনগণকে সচেতন করে তোলার জন্য উপজেলা প্রশাসন ইউথ নেটওয়ার্ক নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাধ্যমে তরুণদের সম্পৃক্ত করে উপজেলার প্রতিটি পাড়ায় মহল্লায় সুবিধাবঞ্চিত হতদরিদ্র মানুষের খোঁজখবর নিয়ে যথাসাধ্য সাহায্য করে সর্ব মহলে প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি।

বর্তমান সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প বা সরকারি বেসরকারি দান অনুদান সরজমিন পরিদর্শন করে শতভাগ বাস্তবায়ন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন প্রান্তে সরকারি বেসরকারি বিদ্যালয় পরিদর্শন করে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ক্লাসে পরিয়ে আলোচনা এসেছেন তিনি। উপজেলার যোগদানের পর থেকে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণকে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার জন্য নিয়েছেন বিভিন্ন পদক্ষেপ উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ এর মধ্য উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে মাটিভরাট পরিষদের ভিতর বিভিন্ন গাছে বাহারি রঙ্গের আলপনা করিয়ে প্রশংসা কুরিয়েছেন তিনি।প্রতিদিন বিভিন্ন দর্শনার্থীরা পরিষদ প্রাঙ্গনে গাছে এসে সেলফি ও ছবি তুলেছেন অসংখ্য মানুষ।

গত ডিসেম্বর ও জানুয়ারি মাসে প্রবাবশালী ব্যক্তিদের কবল থেকে প্রায় ২২৫একর খাস জমি উদ্ধার করে। যার বাজার মূল্য প্রায় ৫০ কোটি টাকা । উপজেলার নায়েকপুর ইউনিয়নের সাত গ্ৰামের এক বছর ধরে চলমান ট্যাটা যুদ্ধ মীমাংসা করে থাক লাগিয়ে দিয়েছেন পুরো উপজেলায়।

তৃতীয় লিঙ্গের হিজড়াদের ভিক্ষাবৃত্তী চাঁদাবাজি করতে নাহয় সেজন্য জীবন মান উন্নয়নের লক্ষ্যে তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন তিনি । তাদের জন্য ঐতিহ্যবাহী দেওয়ান বাজারে ত্রিনয়ন কফি হাউস ও ত্রিনয়ন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট এ দুটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করে দিয়েছেন তিনি।

এছাড়াও সাধারণ মানুষের খাদ্য ও নিরাপত্তায় একের পর এক উদ্যোগ গ্রহণ করে পুরো উপজেলা তাক লাগিয়ে দিয়েছেন তিনি।

ইউএনওর এসব সাফল্যের বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান সামিউল হায়দার শফী বলেন সরকারের একজন উচ্চপদস্থ দায়িত্বশীল প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং মানবসেবক হিসেবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃশাহ আলম মিয়া অসাধারণ একজন ভালো মানুষ।

মদন উপজেলা ইউথ নেটওয়ার্কের সদস্য ও মদন সরকারি কলেজের ছাত্রলীগ সভাপতি আকরাম মিয়া বলেন সরকারের অর্পিত প্রতিটি দায়িত্ব পালনে পেশাদারিত্বের সাথে সঠিকভাবে পালন করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শাহ আলম মিয়া। তার ভালোবাসা এবং সততা মদনের আপামর জনসাধারণ মুগ্ধ যা আমাদের স্থানীয় সংসদ সদস্য সাজ্জাদুল হাসান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে সহায়ক ভূমিকা পালন করছেন।

ইউএনওর কাজের প্রশংসা করতে গিয়ে মদন উপজেলা মেম্বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন বলেন ইউএনও সাহেব যেভাবে সাধারণ মানুষের সাথে মিশে গেছেন সত্যিই অবাক হওয়ার মতো। এলাকার লোকজন তাকে ফোন দিয়ে জিজ্ঞেস করেন কাল কখন অফিসে থাকবেন।, আসলেই তিনি সাধারণ মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শাহ আলম মিয়া বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ভিশন বাস্তবায়ন ও উপজেলা একটি আধুনিক উন্নত উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি। এটি আমার নৈতিক দায়িত্ব স্থানীয় সংসদ সদস্যের সহযোগিতা আমাদের জেলা প্রশাসক স্থানীয় প্রতিনিধি সাংবাদিক এবং সমাজের বৈশিষ্ট্য ব্যক্তিরা সব সময় আমার কাজে সহযোগিতা করছেন। তিনি আরো বলেন ছাত্র জীবন থেকে জনসেবার প্রতি আমার দুর্বলতার ছিল বিসিএস প্রশাসনিক ক্যাডারে চাকুরী হওয়ায় নিজ দায়িত্ব থেকে সেবা করার আরো বেশি সুযোগ পেয়ে যাই। প্রকৃতপক্ষে ভালো কাজ করলে সবাই সহযোগিতা করেন। সর্বোপরি মানুষের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। আমি হয়তো একদিন এই উপজেলায় থাকবো না কিন্তু থেকে যাবে আমার কর্ম।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ