শুক্রবার, জুন ১৪, ২০২৪

ভূয়া জন্ম সনদ তৈরি করে দেওয়া হচ্ছিল বাল্য বিবাহ, প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বন্ধ

যা যা মিস করেছেন

মধ্যনগর উপজেলা প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের মধ্যনগরে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ১৫ বছরের  এক কিশোরী মুক্তি পেল বাল্যবিয়ের অভিশাভ থেকে। ঘটনাটি ঘটেছে সুনামগঞ্জ জেলার মধ্যনগর উপজেলার বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়নের গড়াকাটা গ্রামে।
উপজেলা প্রশাসন ও একাধীক গ্রামবাসীর ভাষ্যমতে,বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) মধ্যনগর উপজেলার বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়নের গড়াকাটা গ্রামের সাবুল মিয়া তার মেয়ে মুন্নি আক্তার (১৩)এর জাল জন্ম সনদ বানিয়ে পাশ্ববর্তী দুলাশিয়া গ্রামের মৃত খোকসেদ মিয়ার ছেলে প্রবাসী মোশারফের সাথে বাল্যবিবাহ দেওয়ার চেষ্টা করে। মেয়ের বয়স কম হওয়ায় কৌশলী দুটি পরিবার তারাতাড়ি বিয়ের সকল আয়োজন সম্পন্ন করার চেষ্টা করেন।
কিন্তু বিধিবাম! ১৫ বছর বয়সের কিশোরীর বিয়ে হচ্ছে।  এমন খবর পৌঁছে যায় উপজেলা প্রশাসনের কাছে। খবরের সত্যতা গোপনে অনুসন্ধান করে উপজেলা প্রশাসন। সত্যতা পাওয়ায় তাৎক্ষণিক স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গ্রাম পুলিশের মাধ্যমে কনে ও বরের বাড়িতে প্রাথমিকভাবে বিয়ে বন্ধ রাখার নির্দেশনা প্রদান করেন।পরবর্তীতে পুলিশ পাঠিয়ে বাল্যবিবাহ বন্ধ করে মেয়েটির পিতার কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। 

বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাসেল আহমেদ বলেন, তার স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া জন্ম সনদ তৈরি করে গড়াকাটা গ্রামে প্রায়সমই এরকম বাল্য বিবাহ দেওয়ার চেষ্টা করে।তিনি আরও বলেন বাল্য বিয়ের খবর পেয়ে প্যানেল চেয়ারম্যান ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে এবং স্থানীয় থানা প্রশাসনের সহযোগিতায় বাল্য বিবাহ টি প্রতিরোধ করতে সক্ষম হই।এমনকি মেয়ের বাবা ইউনিয়ন পরিষদে এসে পূর্ণ বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না বলে অঙ্গীকারবদ্ধ হয়।তিনি আরও বলেন শুধু গড়াকাটাতেই এই বাল্য বিবাহের প্রবনতা বেশি তাই স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ এলাকার সচেতন মানুষ একসাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ সহ ইউনিয়ন পরিষদকে সহযোগিতা করার কথা ব্যক্ত করেন।সকলের সহযোগিতায় বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়ন কে বাল্য বিবাহ মুক্ত করার আশ্বাস প্রদান করেন।

মধ্যনগর থানার ওসি এমরান হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে বাল্য বিবাহ না দেওয়ার শর্তে মুচলেকা নিয়ে বাল্য বিবাহ বন্ধ করা হয়েছে।
ধর্মপাশা উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি অলিদুজ্জামান বলেন,খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক মধ্যনগর থানার ওসি ও সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কে অবহিত করে বাল্য বিবাহ বন্ধ করা হয়েছে। বাল্য বিয়ের বিরুদ্ধে সরকারের জিরো টলারেন্স বিদ্যামান হওয়ায় এরকম অভিযান অব্যাহত থাকবে।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ