শুক্রবার, জুন ২১, ২০২৪

ছাত্রলীগ নেতাসহ ৩ জন সন্ত্রাসী হামলার শিকার

যা যা মিস করেছেন

স্বীকৃতি বিশ্বাস, যশোরঃ

যশোরের অভয়নগরের শিল্প ও বাণিজ্যিক নগরী নওয়াপাড়ায় ছাত্রলীগ নেতা আদনান সামী (১৯), মান্নান শেখ (৪০) ও মামুন সরদার (৩০) সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন।
গতকাল শুক্রবার রাত আনুমানিক দশটার দিকে নওয়াপাড়া ক্লিনিক পাড়া এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা বর্তমানে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন।
আহত ছাত্রলীগ নেতা আদনান সামী উপজেলার বুনোরামনগর এলাকার রবিউল ইসলামের পুত্র, মান্নান শেখ একই এলাকার রহমান শেখ ও মামুন সরদার আমিনুর সরদারের পুত্র।

আহত ছাত্রলীগ নেতা আদনানের চাচা জেলা যুবলীগ নেতা এম এম রুবেল হাসান জানায়, গত শুক্রবার রাতে আদনান, মান্নান ও মামুন অসুস্থ রোগী দেখতে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে যায়। এসময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে উপজেলার কিছু চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এলে সন্ত্রাসীরা মটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যায়। এসময় স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।বর্তমান তারা সেখানেই চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় আমাদের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক নীলাদ্রি সুন্দর বলেন,
গতকাল শুক্রবার রাত আনুমানিক দশটার দিকে হামলার শিকার আদনান, মান্নান ও মামুনকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের আনা হয়। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজন হওয়ায় তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম মেহেদী মাসুদ বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল ও অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিদর্শন করেছে থানা পুলিশ। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ