মঙ্গলবার, অক্টোবর ৩, ২০২৩

পাকিস্তানে খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশে আত্মঘাতী বোমা হামলায় এখন পর্যন্ত ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

যা যা মিস করেছেন

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রোববার (২০ জুলাই) পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বাজাউর জেলায় জামিয়াত উলেমা ইসলাম–ফজল নামের একটি রাজনৈতিক দলের সম্মেলনে ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণ হয়। এতে এখন পর্যন্ত ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছেন শতাধিক।

খাইবার পাখতুনখোয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী রিয়াজ আনোয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, তিনি বলেন, এটি আত্মঘাতী বোমা হামলা ছিল। মঞ্চের খুব কাছে বিস্ফোরণ হয়েছে।

বাজাউর জেলা জরুরি কর্মকর্তা সাদ খান ডন.কমকে জানিয়েছেন, হামলায় দলটির জ্যেষ্ঠ নেতা মাওলানা জিয়াউল্লাহ জান নিহত হয়েছেন।

রাতে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় কেপি পুলিশের মহাপরিদর্শক আখতার হায়াত খান বলেন, বিস্ফোরণে ১০ কিলোগ্রাম বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয়েছে।

প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে বল বিয়ারিং ও অন্যান্য বিস্ফোরক আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। তদন্ত চলছে, অপরাধীদের শিগগির গ্রেপ্তার করা হবে।

এদিকে কেপির তথ্যমন্ত্রী ফিরোজ শাহ বলেছেন, বাজাউর ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলজুড়ে হাসপাতালগুলোতে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

জিও নিউজকে তিনি বলেন, আমরা হেলিকপ্টারের মাধ্যমে গুরুতর রোগীদের পেশোয়ার এবং অন্যান্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি।

খাইবার পাখতুনখোয়ার তত্ত্বাবধায়ক তথ্যমন্ত্রী ফিরোজ জামাল শাহ জিও নিউজকে বলেন, ‘এক জেইউআই-এফ নেতার বক্তৃতার সময় বিস্ফোরণটি ঘটে। এতে দুই শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন।’

আহতদের তিমারগাড়া এবং পেশোয়ারের বিভিন্ন হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জেলার জরুরি সহায়তা বিভাগের কর্মকর্তারা।

এদিকে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছে, এরইমধ্যে প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ঘটনার তদন্ত করতে এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে দায়ীদের চিহ্নিত করার নির্দেশনা দিয়েছেন।

তবে এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী এ হামলার দায় স্বীকার করেনি।

সূত্রঃ জিও নিউজ, ডন.কম

More articles

সর্বশেষ