সোমবার, মে ২০, ২০২৪

লায়লা আফরোজের দুর্নীতি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর

যা যা মিস করেছেন

মোঃ মহিবুল ইসলাম বরগুনা জেলা প্রতিনিধি:

পাথরঘাটার কাকচিড়া ইউনিয়ন পরিবার কল্যাণ সহকারী লায়লা আফরোজের দুর্নীতি তদন্তের কাজ শুরু করছে পরিবার পরিকল্পনা বরগুনা জেলার উপপরিচালক। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সংস্থা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক তিনি তদন্তের কাজ শুরু করছেন।

লায়লা আফরোজের দুর্নীতি নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ে অভিযোগ জমা দেয়ার পরে তা তদন্তের জন্য নির্দেশ দিয়েছে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কার্যালয়ের নির্দেশনা পেয়ে বরগুনা জেলা পরিবার পরিকল্পনা উপপরিচালক তদন্তের কাজ শুরু করছে।

পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নের পরিবার কল্যাণ সহকারী লায়লা আফরোজ এর বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগে উল্লেখ করেন যে, লায়লা আফরোজ দীর্ঘ ৩৭ বছর যাবৎ তার ছেলের মারফত সরকারি ঔষধ ও বিভিন্ন সেবার উপকারণ সমূহ চুরি/ আত্মসাৎ করে বিভিন্ন ঔষধের দোকানে বিক্রি করে আসছেন।

তার ছেলে স্থানীয় বাজার কাজীর হাটে ফার্মেসি দিয়ে অনেক বছর তার মানোর চুরি করা সরকারের স্বাস্থ্য সেবা উপকরন বিক্রি করছেন। এক্ষণে, জনাব লায়লা আফরোজ, পরিবার কল্যাণ। সহকারী এর বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ সমূহ তদন্ত করার জন্য আপনাকে ০১ (এক) সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ করা হলো।

পাথরঘাটা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: বিজলী বালা মিত্র জানিয়েছেন ২০২৩ সালের আগষ্ট মাসের ১ তারিখে লায়লা আফরোজের দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত হবে। তিনি বলছেন অভিযোগের বিষয়টি জেনেছি, ডিডি স্যার আমাকেসহ যেসব কর্মকর্তাদের উপস্থিত থাকতে বলছেন সেই সকল লোকজন উপস্থিত থাকবো।

খোঁজে নিয়ে জানাযায় লায়লা আফরোজ দীর্ঘ ৩৬ বছর সরকারের পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের ফ্রী উপকরণ আত্মসাৎ করে বিক্রি এবং অফিসে অনুপস্থিত থেকে দ্বায়িত্বে অবহেলাসহ নানাবিধ দুর্নীতি করে অর্থ সম্পদের পাহাড় গড়েছে।

বরগুনা জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় থেকে ২৪ জুলাই ২০২৩ তারিখে উপপরিচালক মাহমুদুল হক আজাদ স্বাক্ষরিত তদন্ত সংক্রান্ত একটি নোটিশ দিয়ে পরিবার কল্যাণ সহকারী লায়লা আফরোজে তদন্তানুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়।

জেলা পরিবার পরিকল্পনা উপপরিচালক স্বাক্ষরিত স্মারক নং জেপপ/বরগুনা/২০২৩/২৮৬ নোটিশে বলাহয় “উপর্যুক্ত বিষয়ে ও সূত্রের প্রেক্ষিতে জানানো যাচ্ছে যে, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, ঢাকা কর্তৃক জনাব লায়লা আফরোজ, পরিবার কল্যাণ সহকারী, ২/খ ইউনিট, কাকচিড়া ইউনিয়ন, পাথরঘাটা – এর বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ তদন্তের জন্য নিন্ম-স্বাক্ষরকারীকে তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে।

এক্ষণে, জনাব লায়লা আফরোজ, পরিবার কল্যাণ সহকারী, ২/খ ইউনিট, কাকচিড়া ইউনিয়ন, পাথরঘাটা-এর বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ সমুহের তদন্ত কার্যক্রম আগামী পহেলা আগষ্ট ২০২৩ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় কাকচিড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, পাথরঘাটায় অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত তদন্তানুষ্ঠানে যথা সময় ও তারিখে আপনাকে এবং আপনার স্বপক্ষে প্রয়োজনীয় স্বাক্ষ্য-প্রমাণসহ উপস্থিত থাকার জন্য বলা হলো।

এর আগে ১১ জুলাই ২০২৩ তারিখে সরকারের পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (পার-২) স্বাক্ষরিত একটি চিঠির মাধ্যমে বরগুনা জেলা পরিবার পরিকল্পনা উপপরিচালকে দ্বায়িত্ব দিয়ে লায়লা আফরোজের বিরুদ্ধে সীমাহীন দুর্নীতির ঘটনা তদন্ত করতে নির্দেশনা দেয়া হয়। স্মারক নং – ৫৯.১১.০০০০.১৫৩.২৭.০৬১.২৩- ৩১০ বিষয়: বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নের পরিবার কল্যাণ সহকারী লায়লা আফরোজের বিরুদ্ধে সীমাহীন দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন প্রদান।

সেই নির্দেশনায় দেখা যায় পরিবার কল্যাণ সহকারী লায়লা আফরোজ দীর্ঘ ৩৭ বছর যাবৎ সরকারি ঔষধ ও বিভিন্ন স্বাস্থ্যসেবার উপকরণ সমূহ চুরি/ আত্মসাৎ করে বিভিন্ন ঔষধের দোকানে বিক্রি করে আসছে। তার ছেলে স্থানীয় বাজার কাজীরহাটে ফার্মেসি দিয়ে অনেক বছর তার মায়ের চুরি করা সরকারের স্বাস্থ্যসেবা উপকরণ বিক্রি করছে। এই লায়লা আফরোজের বিরুদ্ধে উত্থাপিত সীমাহীন দুর্নীতির অভিযোগ সমূহ প্রমাণসহ তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে পরিচালক (প্রশাসন), পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর বরাবর দাখিল করার জন্য নির্দেশক্রমে আপনাকে অনুরোধ করা হলো।

অনুমতি ব্যতিত এই সাইটের কোনো কিছু কপি করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।

প্রিয় পাঠক অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্যামেইলবিডি.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন themailbdjobs@gmail.com ঠিকানায়।

More articles

সর্বশেষ