মঙ্গলবার, মার্চ ২১, ২০২৩

জলঢাকায় বিয়ে বাড়িতে মাংস কম দেওয়ায় মারামারি প্রান গেলো বরের বাবার

যা যা মিস করেছেন

সোহাগ ইসলাম নীলফামারী:

নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলায় বিয়ে বাড়িতে মাংস কম দেওয়া নিয়ে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে বরের বাবাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে কনে পক্ষের বিরুদ্ধে ।

শুক্রবার (০৩ মার্চ) দিবাগত রাত ১ টায় উপজেলার বগুলাগাড়ি এরশাদের বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বরের বাবা নুরু মিয়া রংপুর হাজিরহাট এলাকার উত্তম বাওয়াই পাড়ার বাসিন্দা।

স্থানীয়রা জানান, পারিবারিক ভাবে জলঢাকা উপজেলার বগুলাগাড়ী এলাকার আনারুল ইসলামের মেয়ে জান্নাতুলের সাথে বিয়ে ঠিক হয় নিহত নুরু মিয়ার ছেলে জোনাব আলীর। তবে বিয়ের দিন কনে বাড়িতে ১০০ জন অতিথি আসার কথা থাকলেও প্রায় আড়াই শত অতিথি আসায় খাওয়ার সময় মাংস কম পাওয়ায় বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়।এক পর্যায়ে মারামারির ঘটনা ঘটে৷ এতে বরের বাবা নুরু মিয়া অসুস্থ হয়ে পরলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মারা যান তিনি। পরে খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয় পুলিশ। এঘটনায় কনের বাবা ও স্থানীয় এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

ঘটনার পর বাড়ি থেকে পালিয়েছে কনের পরিবারের বাকি লোকজন।বরের পরিবারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে জলঢাকা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) ফিরোজ কবীর বলেন, “সেখানে মারামারির ঘটনা ঘটেছিল। আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছি। এঘটনায় ২ জনকে আটক করেছি। বাকি আইনি ব্যবস্থা গ্রহন চলমান আছে। পিটিয়ে হত্যা কিনা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলে বলা যাবে।”

More articles

সর্বশেষ