আশা করি পরেরবার ভালো করব: লিটন দাস - দ্যা মেইল বিডি / খবর সবসময়
ক্রিকেটখেলাধুলা

আশা করি পরেরবার ভালো করব: লিটন দাস

ওয়ানডে সিরিজের পর এবার টি-টোয়েন্টিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে ৬৫ রানে হেরেছে বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার অকল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি থেকে টি-টেন হয়ে যাওয়া ম্যাচটিতে প্রথম ব্যাট করতে নেমে ১৪১ রান তুলে কিউইরা। জবাবে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৯.৩ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে ৭৬ রান তুলে টাইগাররা।

শেষ ম্যাচের একাদশে ছিলেন না দলের সিনিয়র কয়েকজন খেলোয়াড়। মাংসপেশিতে আঘাত পেয়ে শেষ ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছেন নিয়মিত অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। যে কারণে নেতৃত্বের ভার পড়ে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন দাসের কাঁধে।
লজ্জাজনক হারের পর ম্যাচ শেষে লিটন দাস বলেন, ‘ব্যাটিং ও ফিল্ডিংয়ে আমরা ভালো করতে পারছি না। এটার মাশুলই গুনতে হয়েছে। আসলে উপমহাদেশের উইকেটে খেলে আমরা অভ্যস্ত। কিন্তু একইসঙ্গে এটাও জানতে হবে বাউন্সি উইকেটে কীভাবে খেলতে হয়। আমরা শিখছি। শিখছি এখানকার উইকেট ও কন্ডিশনে কীভাবে খেলতে হয়। আশা করি পরেরবার ভালো করব।’

এর আগে সিরিজের শেষ ম্যাচে কিউইদের দেয়া ১৪২ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ব্যর্থতার পরিচয় দেন সৌম্য সরকার। সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে তার ব্যাট হাসলেও শেষ ম্যাচে ৪ চলে ২ চারে ১০ রানে টিম সাউদিকে উইকেট উপহার দেন তিনি। মাঠে নেমে কিউই পেসারের পরের বলে সাজঘরে ফেরেন লিটন। ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম (১৯) চেষ্টা করেছিলেন।

কিন্তু রান পাহাড়ের নিচে চাপা পড়া বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের কোনো সুযোগই দেয়নি কিউই বোলাররা। একাদশে সুযোগ পাওয়াটা কাজে লাগাতে পারেননি নাজমুল হোসেন শান্ত (৮)। টড অ্যাশটেলের বলে বোল্ড হোন তিনি। কিউই স্পিনার এর আগে ফেরান নাঈমকে। এরপর পরের শিকার হিসেবে তুলে নেন আফিফ হোসেন (৮) ও মেহেদি হাসানকে (০)। মাঝখানে কেবল দুই অঙ্কের রান ছুঁয়েছেন একাদশে সুযোগ পাওয়া মোসাদ্দেক হোসেন (১৩)। শরিফুল ইসলাম (৬), তাসকিন আহমেদ (৫) কেবল রানের ব্যবধান সামান্যটুকু কমিয়েছেন।

টি-টেন হয়ে যাওয়া ম্যাচটিতে শুরু থেকে ঝড় তুলেন দুই কিউই ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও অ্যালেন। টাইগারদের আবারও একের পর এক ক্যাচ মিসের মহড়ায় ৫.৪ ওভারে দলকে ৮৫ রান এনে দেন তারা। এই ম্যাচে পাঁচটি ক্যাচ মিস করেছে বাংলাদেশের ফিল্ডাররা।

তবে এর মাঝে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা গাপটিলকে ফেরান মেহেদি হাসান। সাজঘরে ফেরার আগে ১৯ বলে ১ চার ও ৫ ছয়ে ৪৪ রান করেছেন তিনি। গাপটিল ফিরলেও ১৮ বলে ফিফটি তুলেন নেন অ্যালেন। তাসকিন আহমেদের বলে সাজঘরে ফেরার আগে ২৯ বলে ১০ চার ও ৩ ছয়ে ৭১ রান করেন তিনি।

তার আগে গ্লেন ফিলিপসকে (১৪) আউট করেন শরিফুল ইসলাম। ইনিংসের শেষ বলে রান আউটের শিকার হন ড্যারিল মিচেল (১১)। কোনো বলের মুখোমুখি না হয়ে অপরাজিত থাকেন মার্ক চাপম্যান (০)।

Show More

এই বিভাগের আর খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close