26 C
Dhaka
বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৩

দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী

যা যা মিস করেছেন

Nurul Nahid the mail bd

এসএসসিতে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে এবারে হিন্দু ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের ফল বিভ্রাটের ঘটনা ঘটে। এমনকি এক পরীক্ষার্থী আত্মহত্যাও করে। পরে জানা যায়, ওই পরীক্ষার্থী জিপিএ ৪.৭৬ পেয়েছে। আর সেই কারণেই দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী। এমনকি তাদের বেতন বন্ধ করে দেয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন মন্ত্রী। 

এ ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর আজ বুধবার (১ জুন) সকালে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের একথা জানান শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী সাংবাদিকদের আরও বলেন, যারা দায়ী, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেব। যারা এগুলো করছেন তাদের অবশ্যই শাস্তি দেব। বেতন বন্ধ করব, তারপরে চূড়ান্ত বিচারে চাকরি থাকবে কি থাকবে না তা ঠিক করা হবে।

তিনি বলেন, এর জন্য দায়ী হবেন পরীক্ষার খাতার সঙ্গে ফল মেলানোর জন্য যারা শিট দিয়েছেন তারা। অমনযোগী ছিলেন অথবা ভুল করেছেন অথবা তারা দায়সারা কাজ করেছেন।

গত ১১ মে সারাদেশে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। ওই দিন বরিশাল নগরীর উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের মেধাবী ছাত্র সর্বজিৎ ঘোষ হৃদয় হিন্দুধর্ম বিষয়ে ফেল করার খবর পেয়ে আত্মহত্যা করে। এ ঘটনায় বোর্ড কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন।

পরবর্তী সময়ে ত্রুটি ধরা পড়লে হিন্দুধর্ম বিষয়ের ‘খ’ সেটের নৈমিত্তিক উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়নে ১ হাজার ১৪১ শিক্ষার্থী ফেল থেকে পাস করে। ওই ফলাফলে মৃত হৃদয়ও জিপিএ ৫ পেয়ে পাস করে।

More articles

সর্বশেষ