ইউপি নির্বাচনে ভোট উৎসব শুরু

0
497
UP Election the mail bd
নবম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে দেশের ৭১৭ ইউপিতে ভোট শুরু হয়েছে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে। মঙ্গলবার সকাল আটটায় নির্ধারিত সময়েই কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোট শুরু হয়েছে, চলবে বিকাল চারটা পর্যন্ত।
এদিকে নির্বাচনে মারামারি-হানাহানি দুঃখজনক আখ্যা দিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বলেছেন, ইউপি নির্বাচনে রাষ্ট্রের অন্যবিভাগের কাছ থেকে কাঙ্ক্ষিত সহযোগিতা পাচ্ছি না। তাই এটি নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি না। তবে নির্বাচনে সহিংসতা চরিত্রগত। এটি নতুন কিছু নয়।
নির্বাচনে ১৪টি রাজনৈতিক দল অংশ নিলেও জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের মূল লড়াই হচ্ছে আওয়ামী লীগের নৌকা ও বিএনপির ধানের শীষের মধ্যে।
নির্বাচনী এলাকায় মাঠে টহলে রয়েছে বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, কোস্ট গার্ড ও আনসারসহ এক লাখ ৮০ হাজারের বেশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তাৎক্ষণিক সাজা দিতে সঙ্গে রয়েছে নির্বাহী ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট।
প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচনের ভোটগ্রহণের সময় ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে নির্বাচনী পরিবেশ। প্রতিপক্ষের ওপর হামলা, বাড়ি-ঘর ভাঙচুর, প্রচারে বাধা দেয়াসহ সহিংস ঘটনা বেড়েছে।
এসব ঘটনায় ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও রিটার্নিং কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা নিতে শুধু নির্দেশনা পাঠিয়ে দায় সারছে ইসি। ওই সব ঘটনায় কমিশন সচিবালয় থেকে মনিটরিং ও দায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর কোনো পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না।
নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থা ব্রতীর নির্বাহী পরিচালক বলেছেন, আমরা উদ্বেগে আছি। ভোটারদের মধ্যে শঙ্কা রয়েছে। ইসিকে নির্বিঘ্ন পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।
আগের তুলনায় এবার ভোটের আগেই সহিংসতা হয়েছে অনেক এলাকায়।
এ অবস্থায় ভোটের পরিবেশ নিয়ে সোমবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার  জানান, প্রথমধাপের ভোটের জন্য সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। ব্যালট পেপার, স্বচ্ছ ব্যালট বাক্সসহ নির্বাচনী সামগ্রী কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে।  আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ নির্বাচনী কর্মকর্তারা অনিয়ম ঠেকাতে সজাগ থাকবে। ভোটের সময়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কেউ অনিয়ম ও পক্ষপাতমূলক আচরণ, দায়িত্বে অবহেলা করলে তাৎক্ষণিক শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ইউপিতে প্রথম ধাপে ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের ৫৪ জন চেয়ারম্যান, ১৭৯ জন সাধারণ সদস্য ও ৫৪ জন সংরক্ষিত সদস্য পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। আজকের ভোটে তিন হাজার ৩৪ জন চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য পদে ২৫ হাজার ৮৪৭ জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে সাত হাজার ৫৭৫ জন প্রার্থী রয়েছেন। সবমিলিয়ে মোট প্রার্থী ৩৬ হাজার ৪৫৬ জন।

নির্বাচনে ভোটার এক কোটি ১৯ লাখ ৪০ হাজার ৭৪১ জন। পুরুষ ভোটার ৫৯ লাখ ৯৫ হাজার ২৬৯ জন এবং নারী ৫৯ লাখ ৪২ হাজার ৬৯৪ জন। ছয় হাজার ৯৮৭টি ভোটকেন্দ্র; ভোটকক্ষ ৩৮ হাজারের বেশি। ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা প্রায় এক লাখ ২১ হাজার ২০০ জন।

ইউপি নির্বাচন ভোটগ্রহণ ও গণনা শেষে দ্রুত ফলাফল পাঠাতে রিটার্নিং অফিসারদের বিশেষ নির্দেশনা পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। রোববার বিকেলে এ নির্দেশনা সব রিটার্নিং অফিসারকে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি ভোটগ্রহণ শেষে ফলাফল ঘোষণা ও পরবর্তী সময়ে যাতে সহিংসতার সৃষ্টি না হয় সেদিকে দৃষ্টি রাখতে বলা হয়েছে।

নির্বাচনের কারণে ৭১৭ ইউপিতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। ফলে নির্বাচনী এলাকায় সব অফিস বন্ধ থাকবে।

ইলেকট্রনিক মিডিয়া ৪৪৩, প্রিন্ট ৪৩৭, অনলাইন ১৪২, মোট ১০১৭ জন সাংবাদিক। ডেমোক্রেসি ওয়াচ ৫০, বাংলাদেশ মানবাধিক কমিশন ৬, বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা ৬, ব্রতী ৫ ও জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষক পরিষদ-জানিনপ ৪টি। মোট ৭১টি। এদের বাইরে স্থানীয় পর্যায়ে ৫টি সংস্থার প্রায় ৫ হাজার পর্যবেক্ষক থাকবে।

ইসির ঘোষণা অনুযায়ী ২৩ মার্চ নাগরপুরে ১১টি এবং ২৭ মার্চ টেকনাফের দুটি ইউপিতে ভোট হবে। এ ছাড়া দ্বিতীয় ধাপে ৩১ মার্চ, তৃতীয় ধাপে ২৩ এপ্রিল, চতুর্থ ধাপে ৭ মে, পঞ্চম ধাপে ২৮ মে ও ষষ্ঠ ধাপে ৪ জুন ভোট হওয়ার কথা রয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here