তুষারঝড়ের কারণে স্থবির হয়ে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের জনজীবন

0
416

যুক্তরাষ্ট্রে প্রবল তুষারঝড় হচ্ছে।  ঝড়ে এ পর্যন্ত নয়জনের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।  ১০টি অঙ্গরাজ্যে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। ১২টির বেশি অঙ্গরাজ্যের পাঁচ কোটির বেশি মানুষকে ঘর থেকে বের না হতে বলা হয়েছে।  খবর বিবিসির।

 

Snow fall the mail bd

যুক্তরাষ্ট্রে তুষারঝড়টির কারণে ইতিমধ্যে দুই ফুটের বেশি পুরু বরফ জমেছে।  এভাবে চলতে থাকলে আজ রোববার নাগাদ গোটা ওয়াশিংটন ৩০ ইঞ্চি (৭৬ সেন্টিমিটার) পুরু, অর্থাৎ রেকর্ড পরিমাণ তুষারে ঢেকে যেতে পারে।  বলা হচ্ছে, প্রচণ্ড দমকা হাওয়া নিয়ে ঝড়টি এগিয়ে যাচ্ছে দেশটির পূর্ব উপকূলের দিকে।

বিবিসি বলেছে, তুষারঝড়ের কবলে পড়ে সড়ক দুর্ঘটনাতেই সবগুলো প্রাণহানি ঘটেছে।  ঘটনাস্থল টেনেসি, নর্থ ক্যারোলাইনা, কেনটাকি ও ভার্জিনিয়া। আশঙ্কা করা হচ্ছে, ১৯২২ সালে দুই দিনের তুষারঝড়ে ২৮ ইঞ্চি পুরু তুষার জমার রেকর্ড ছাড়িয়ে যেতে পারে ওয়াশিংটন ও এর পার্শ্ববর্তী ভার্জিনিয়া ও মেরিল্যান্ডে।  ফলে টেনেসি, জর্জিয়া, কেনটাকি, নর্থ ক্যারোলাইনা, নিউজার্সি, ভার্জিনিয়া, ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া, মেরিল্যান্ড, পেনসিলভানিয়া ও কলম্বিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

Snow fall 2 the mail bd

রাজধানী ওয়াশিংটনে ঝড়ের কারণে সাপ্তাহিক ছুটির দিনটিতে যাতায়াতব্যবস্থা পুরোপুরি স্থবির থাকার আশঙ্কাও করা হচ্ছে।  ইতিমধ্যে এর রেস্তোরাঁ, পানশালা ও বড় বড় সুপার মার্কেট বন্ধ হয়ে গেছে।  ওয়াশিংটনের মেয়র মিউরিয়েল বাউসার ঝড়টিকে ‘জীবন-মরণসংশ্লিষ্ট’ ঝড় হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।

বিভিন্ন সূত্র বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণে আরকানসাস থেকে উত্তর-পূর্বে ম্যাসাচুসেটস এলাকা ঝড়ের কবলে রয়েছে।  গত শুক্রবার ও গতকাল শনিবার বাতিল করা হয়েছে সাত হাজারের বেশি ফ্লাইট।  আর নর্থ ক্যারোলাইনায় বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে এক লাখেরও বেশি ঘরবাড়ি।  এমনকি প্রবল তুষারঝড়ের কারণে শুক্রবার দুপুরে কেন্দ্রীয় সরকার কার্যক্রম গুটিয়ে ফেলতেও বাধ্য হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের জনবহুল শহর নিউইয়র্কও ঝড়ের আওতামুক্ত নয়।  ফলে বাসিন্দাদের প্রস্তুত থাকতে আহ্বান জানিয়েছেন নিউইয়র্কের মেয়র বিল ডে ব্লাজিও।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী নিউজার্সির গভর্নর ক্রিস ক্রিস্টি তুষারঝড়ে প্রস্তুতি নিতে নিউ হ্যাম্পশায়ারের প্রাথমিক প্রচারকাজ থেকে ফিরে এসেছেন।  এ ছাড়া এই ঝড়ের কারণে বাতিল করা হয়েছে মেরিল্যান্ডের বাল্টিমোর শহরে সংগীতশিল্পী গার্থ ব্রুকসের দুটি কনসার্টসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান।

নিউ ইংল্যান্ড বাংলাদেশ এসোসিয়েশন’-র প্রেসিডেন্ট তামান্না করিম বস্টনে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিরাপদে আছেন বলে  জানান।

“এখানে তুষার অতটা বিপজ্জনক নয়।  অবশ্য পাশের রোড আইল্যান্ড ও কানেকটিকাটের অবস্থা ভয়াবহ।  এখন পর্যন্ত বাংলাদেশিরা নিরাপদেই আছেন বলে সংবাদ পাচ্ছি।”

১৮৬৯ সালের পর এমন ভয়ঙ্কর তুষার ঝড় আর হয়নি বলে যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া দফতরের এক বিবৃতিতে জানানো হয়।  নিউইয়র্ক সিটির গভর্নর অ্যান্ড্রু ক্যুমো একে ‘ইতিহাসের পঞ্চম ভয়াবহ তুষার ঝড়’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here