23 C
Dhaka
বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৩

বেকসুর খালাস সালমান খান

যা যা মিস করেছেন

মুম্বাইয়ে গাড়ি চাপা মামলায় বেকসুর খালাস পেলেন ভারতীয় অভিনেতা সালমান খান।  মুম্বাইয়ের এক নিম্ন আদালতে দোষী সাব্যস্ত হলে তার বিরুদ্ধে সব অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন মুম্বাই হাইকোর্ট।

উচ্চ আদালতে বলা হয়, “বাদী পক্ষের দেয়া প্রমাণের ভিত্তিতে তাকে (সালমান খান) দোষী সাব্যস্ত করা সম্ভব নয়, সাধারণ মানুষ যাই ভাবুন না কেন।”

আদালতে আরো বলা হয়, দূর্ঘটনার সময় অভিনেতা মাতাল ছিলেন কি না এবং গাড়ি চালাচ্ছিলেন কি না তা সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছে বাদী পক্ষ। salman khan the mail bd

বাদী পক্ষের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী, সালমানের সে সময়ের দেহরক্ষী রাভিন্দ্র পাতিলের গ্রহণযোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন আদালত। রাভিন্দ্রই একমাত্র ব্যক্তি যিনি বলেছিলেন মাতাল হয়ে গাড়ি চালাচ্ছিলেন সালমান। আদালতে বলা হয়, রাভিন্দ্র সম্পূর্ণ বিশ্বাসযোগ্য সাক্ষী হিসেবে বিবেচিত হতে পারেন না এবং তার সাক্ষ্যের ওপর ভরসা করে নিম্ন আদালত ভুল করেছে।

এছাড়াও বিভিন্ন প্রমাণ সংগ্রহের প্রক্রিয়ায় সাজানো নাটকের ইঙ্গিত পাওয়া যায় বলেও পর্যবেক্ষণ করেছেন আদালত। সেই সঙ্গে দূর্ঘটনার সময় উপস্থিত সালমানের জ্ঞাতি ভাই সঙ্গীতশিল্পী কামাল খানকে জিজ্ঞাসাবাদ না করার বিষয়টিও ভুল ছিল বলে জানান আদালত।

চলতি বছরের ৫ জুন ১৩ বছর ধরে চলতে থাকা মুম্বাইয়ে গাড়ি চাপা মামলার চূড়ান্ত রায়ে সালমানকে দোষী সাব্যস্ত করে মুম্বাইয়ের এক নিম্ন আদালত। ২০০২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর মধ্যরাতে সালমানের সাদা রঙের টয়োটা ল্যান্ড ক্রুজার গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উঠে পড়ে বান্দ্রার একটি বেকারির সামনের ফুটপাতে। এই দুর্ঘটনায় ফুটপাতে শুয়ে থাকা এক ব্যাক্তি নিহত হন এবং দুজন আহত হন। সালমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়, তিনি সে সময় মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছিলেন।

প্রথমে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে সালমানের বিরুদ্ধে মামলা চললেও ২০১৪ সালের এপ্রিলে এই মামলায় নতুন করে বিচার শুরু হয়। এবার সালমানের বিরূদ্ধে আনা হয় দণ্ডনীয় নরহত্যার (কাল্পেবল হোমিসাইড) অভিযোগ।

More articles

সর্বশেষ

২ কেজি গাঁজাসহ আটক ২